টেলিমেডিসিন প্রকল্পের সম্প্রসারণ করল গ্রামীণফোন

বিজনেসটাইমস২৪.কম
ঢাকা, ০২ জুন, ২০১৩:

graদেশের শীর্ষস্থানীয় মোবাইল অপারেটর গ্রামীণফোন এ দেশের গ্রামাঞ্চলে উন্নতমানের স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের লক্ষ্যে টেলিমেডিসিন সেবার সম্প্রসারণ করেছে।

এই উপলক্ষে গ্রামীনফোন আজ রবিবার বাংলাদেশে টেলিমেডিসিন ব্যবস্থার প্রমিতকরণ ও নীতিমালা নির্ধারণের কৌশলগত অংশীদার- তথ্য ও যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের সাথে একটি সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর করে।  টেলিমেডিসিন ওয়ার্কিং গ্র“প অব বাংলাদেশ (টিডব্লিউজিবি) এই প্রকল্পের প্রযুক্তিগত অংশীদার হিসেবে এবং আয়শা মেমোরিয়াল ¯েপশ্যালাইজ্ড হাসপাতাল,  দুঃস্থ স্বাস্থ্য কেন্দ্র এবং কর্নসান ওয়ার্ল্ডওয়াইড  প্রকল্পটির বাস্তবায়নকারী  অংশীদার হিসেবে কাজ করবে।

এই প্রকল্পের জন্য ডিআইসিওটি (ডিজিটাল ইমেজিং অ্যান্ড কমিউনিকেশন অন টেলিমেডিসিন) নামক একটি নতুন ধরণের যন্ত্র তৈরি করা হয়েছে যা টিআইএমইএস (টেলিমেডিসিন ইনফরমেশন ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড এডুকেশন সিস্টেম) সফটওয়্যারের সাহায্যে ব্যবহার করা হবে । এ দেশের অসহায়-বঞ্চিত জনসাধারণের মাঝে উন্নতমানের স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দেবার লক্ষ্যে এ উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।

চুক্তি স্বাক্ষরের ফলে চলমান এপ্রকল্পটি নতুন স্থাপিত ইউনিয়ন ইনফরমেশন সার্ভিস সেন্টারগুলোর কার্যক্রমকে আরও বলিষ্ঠ করে তুলবে। ১৫ টি  ইউনিয়ন ইনফরমেশন সার্ভিস সেন্টার টেলিমেডিসিন সেন্টারে রুপান্তর করা হবে এবং চিকিৎসকদের সাহায্যের জন্য উদ্যোক্তাদেরকে টেলিমেডিসিন  সহকারী হিসেবে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। চিকিৎসক এবং রোগীদের মাঝে ভিডিও কনফারেন্স যেন নিখুঁতভাবে চলতে পারে সেজন্য কমপক্ষে ১এমবিপিএস ব্যান্ডউইথ-এর ইন্টারনেট সেবা নিশ্চিত করা হবে। এছাড়াও, কনসার্ন ওয়ার্ল্ডওয়াইড এবং এনএইচএসডিপি-এর স্মাইলিং সান ক্লিনিকের অংশগ্রহণে দেশের প্রত্যন্ত এলাকায়  ২০ টি গ্রামীণ টেলিমেডিসিন কেন্দ্র এবং ২০ টি স্মার্টফোন/ট্যাবলেট ভিত্তিক সার্ভিস ডেলিভারি পয়েন্ট এই প্রকল্পের আওতায় আনা হবে।

গ্রামীণফোন গত ২০১২ সালের ফেব্র“য়ারির মাঝামাঝি সময়ে দেশের তিনটি স্থানে টেলিমেডিসিন প্রকল্পটি পরীক্ষামূলকভাবে চালু করে । এপর্যন্ত  প্রায় ২০০০ জন রোগী এই কেন্দ্রগুলোর সাহায্যে চর্মরোগের  চিকিৎসা গ্রহণ করে থাকেন ।

গ্রামীণফোনের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার (সিইও)  বিবেক সুদ বলেন, প্রকল্পটি আরও বেশি অঞ্চলে বিস্তৃত করতে পেরে গ্রামীণফোন অত্যন্ত আনন্দিত। আমাদের বিশ্বাস, এই প্রকল্পের দ্বারা গ্রামের সাধারণ মানুষেরা বিশেষজ্ঞ পরামর্শ গ্রহণের মাধ্যমে তাদের রোগ নিরাময়ের বিশেষ সুবিধা পাবেন ।

মন্তব্য প্রদান করুন

*


*