ক্ষতিগ্রস্থ বিনিয়োগকারীদের আবেদন গ্রহন শুরু করেছে মার্চেন্ট ব্যাংক

বিজনেসটাইমস২৪.কম
ডেস্ক, ০২ অক্টোবর, ২০১৩:

merchantপুঁজিবাজারের ভয়াবহ ধসে ক্ষতিগ্রস্থ ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের জন্য সরকার ঘোষিত প্রণোদনা প্যাকেজ এর আওতাধীন সুবিধা দিতে আবেদন গ্রহনের কার্যক্রম শুরু মার্চেন্ট ব্যাংক। বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স এসোসিয়েশন (বিএমবিএ) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র মতে, অধিকাংশ মার্চেন্ট ব্যাংক ইতিমধ্যে এ আবেদন গ্রহন শুরু করেছে। এদের মধ্যে অনেকেই তাদের ক্ষতিগ্রস্থ তালিকায় থাকা বিনিয়োগকারীদের ভিত্তিতে আবেদনের সময় বেধে দিচ্ছে।

এক্সিম ইসলামিক ইনভেস্টমেন্ট এর সূত্র মতে, আগামী ১৩ অক্টোবর পর্যন্তু ক্ষতিগ্রস্থ বিনিয়োগকারীরা ঋনের জন্য আবেদন করতে পারবেন। তবে আইডিএসলসি ইনভেস্টমেন্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেন, আইসিবির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত আবেদন গ্রহন করবে। তাই অমরা এ সময়ের মধ্যে যতগুলো আবেদন পাবো তা আইসিবিতে জমা দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

তিনি আরো জানান, আমাদের কোম্পানির ওয়েব সাইটে এ সংক্রন্ত তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থ ১ হাজার ৯৪ জন বিনিয়োগকারীকে ইতিমধ্যে ই-মেইল করা হয়েছে। পাশাপাশি সবাইকে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে এ বিষয়ে জানানোর প্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২০ আগস্ট ক্ষতিগ্রস্থ ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের সুদ মওকুফের পুনঃঅর্থায়ন তহবিলের অর্থছাড়ের নীতিমালা অনুমোদন দেয় অর্থমন্ত্রণালয়। এ অনুমোদন সংক্রান্ত একটি চিঠিও বাংলাদেশ সিকিউরিটি অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনকে (বিএসইসি) দেয় অর্থ মন্ত্রণালয়। এরপর গত ২৬ আগস্ট ক্ষতিগ্রস্থ ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের সহায়তা তহবিলের প্রথম কিস্তির ৩০০ কোটি টাকা ছাড় করে বাংলাদেশ ব্যাংক। এদিন ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশের (আইসিবি) এ সংক্রান্ত হিসাবে এ টাকা স্থানান্তর করা হয়।

পুনঃঅর্থায়নের নীতিমালা অনুযায়ী, ২০০৯ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ২০১১ সালের ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত পুঁজিবাজারে সর্বোচ্চ ১০ লাখ টাকা বিনিয়োগ করে যারা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন তারা এ সুবিধা পাবেন। এ সুবিধার আওতায় ক্ষতিগ্রস্থ বিনিয়োগকারীদের নেয়া ঋণের যে সুদ হয়েছে তার ৫০ শতাংশ মওকুফ করা হবে।

এছাড়া বাকি ৫০ শতাংশ সুদ ও আসল একটি সুদবিহীন বন্টক অ্যাকাউন্টে রেখে তাদের ঋণ পুনঃতফসিল করা হবে। অর্থাৎ নতুন করে ঋণ দেয়া হবে। যার সুদ হার হবে সর্বোচ্চ ৯ শতাংশ। পুনঃতফসিলকৃত এই ঋণের অর্থ বিনিয়োগকারীকে ত্রৈমাসিক কিস্তিতে তিন বছরে পরিশোধ করতে হবে। এর ফলে ওইসব বিনিয়োগকারীদের হিসাবগুলো পুনরায় পুঁজিবাজারে লেনদেন করতে পারবে।

এছাড়া সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, পুঁজিবাজারে ক্ষতিগ্রস্থ ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের সহায়তা তহবিল ৯ শতাংশ সরল সুদে এ অর্থ পাবে। আইসিবি ৭ শতাংশ সুদে মার্চেন্ট ব্যাংক ও স্টক ব্রোকারগুলোকে তহবিল সরবরাহ করবে। মার্চেন্ট ব্যাংক ও ব্রোকাররা ৯ শতাংশ সুদে পুঁজিবাজারের ক্ষতিগস্থ ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের ঋণ পুন:তফসিল ও নতুন ঋণ প্রদান করবে।

মন্তব্য প্রদান করুন

*


*