হাড় মজবুতে ব্যায়াম

বিজনেসটাইমস২৪.কম
ডেস্ক, ০৭ অক্টোবর, ২০১৩:

exercise-720131007073102হাড় শক্ত রাখতে নিয়মিত শরীর চর্চা বা বিশেষ ধরণের ব্যায়াম বড় ভূমিকা পালন করতে পারে৷ প্রায়ই শোনা যায় বয়স বাড়ার সাথে সাথে হাড়ের নানা সমস্যা ও ব্যথা শুরু হয় ৷

কিন্তু কেন এটা হয় – তা নিয়ে হয়ত অনেকেই ভাবেন না৷ অস্টিওপোরোসিস বা হাড় নরম হয়ে যাওয়ার সমস্যায় জার্মানিতে ভুগছেন প্রায় ৭,৮ মিলিয়ন মানুষ৷

হাড় নরম বা ভেঙে যাওয়ার জন্য শুধু বয়স একমাত্র কারণ নয়৷ থাইরয়েড, পেটের ক্রনিক সমস্যা বা পাকস্থলির অসুখের কারণেও হাড় নরম বা ক্ষয় হতে পারে৷ আর পুষ্টিগুণ সম্পন্ন খাওয়া-দাওয়া না করা ও অতিরিক্ত ধূমপান হাড়কে নরম করে৷ তাছাড়া নানা ধরনের ওষুধ-পত্র সেবন থেকেও হাড় নরম হতে পারে৷

হাঁটাহাটি, সাঁতার কাটা এবং সাইকেল চালানো শরীরকে ফিট রাখে, কিন্তু হাঁড় শক্ত রাখায় তেমন কোনো ভূমিকা নেই এগুলির৷ এর জন্য রয়েছে বিশেষ ব্যায়াম, যা ঘরে বসেও করা যায়৷

বলা বাহুল্য, এক্ষেত্রে এমন কিছু করতে হবে যাতে মাংসপেশিতে ভালোভাবে টান লাগে বা চাপ পরে৷ যেমন এক পায়ে দাঁড়িয়ে বেশ কিছুক্ষণ লাফিয়ে লাফিয়ে হাঁটা৷

হাঁড় ঠিক রাখতে এসব ব্যায়াম যে কোনো বয়সেই শুরু করা যায়৷ ৬০ অথবা ৭০ বছর বয়সও নাকি দেরি নয়, বলেন কোনো কোনো ডাক্তার৷ তবে এর জন্য নিয়মিত ব্যায়াম করতে হবে৷ সপ্তাহে কম করে হলেও তিনদিন৷ তবে আগে ডাক্তারের সাথে কথা বলে নেয়াই ভালো।

হাড়ের সমস্যার কারণে ঠিকমতো চলাফেরা করতে পারেন না এমন মানুষের সংখ্যা জার্মানিতে প্রায় ১,৫৬ মিলিয়ন, যাঁরা বাড়িতে আত্মীয়, নার্স বা অন্যের সাহায্যে চলাফেরা করেন৷ হাড়কে শক্ত রাখতে বেশি কফি, চিনি, লবন, চিনি মিশ্রিত সফ্ট ড্রিংক এবং মদ্যপান এড়িয়ে চলাই ভালো৷ তবে সব কিছুর পাশাপাশি নিয়মিত ব্যায়াম করতেই হবে।

হাড়ের জন্য ভিটামিন ‘ডি’ খুবই জরুরি৷ আর এই ভিটামিন ডি রয়েছে সামুদ্রিক মাছে৷ প্রতিদিন কিছুক্ষণ রোদে হাঁটাহাঁটি করাও দরকার হাড় শক্ত রাখার জন্য৷ তাছাড়াও ভিটামিন এ, সি, কে এবং বি ১২ হাড়কে মজবুত রাখতে সহায়তা করে৷

দুধ, দই, পনির, চিজ বা অন্যান্য দুগ্ধজাতীয় খাবার রয়েছে প্রচুর ক্যালসিয়াম যা হাড়ের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজন৷ তাছাড়া মিনারেল ওয়াটারেও রয়েছে ক্যালসিয়াম৷ তবে সবকিছুই বুঝে শুনে খাওয়া ভালো৷

মন্তব্য প্রদান করুন

*


*