গারো পাহাড়ে সারা বছর সবজি চাষ

বিজনেসটাইমস২৪.কম
শেরপুর, ১৬ নভেম্বর, ২০১৩:

sherশেরপুরের সীমান্তবর্তী ঝিনাইগাতী উপজেলায় এখন সারা বছরই সবজি চাষ হচ্ছে। আর এসব সবজি আবাদ করে স্বাবলম্বী হয়েছেন শতশত কৃষক।

সীমান্তবর্তী এ উপজেলার পাহাড়ী গ্রামগুলোতে ধানচাষ তেমন একটা ভালো হয় না। আর এসব উঁচু জমিগুলো সবজি চাষের উপযোগী। এ সুবাদে প্রান্তিক চাষীরা বেছে নিয়েছে সবজি চাষ।

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর জানায়, এ উপজেলায় প্রায় ২ হাজার ৫শ’ কৃষক সবজি চাষের সাথে জড়িত।

সবজি আবাদের এলাকাগুলো হচ্ছে, উপজেলার হলদিবাটা, বনগাও, জিগাতলা, দিঘীরপাড়, কালিনগর, ঘাগড়া, জোলগাও, হাসলিবাতিয়া, চেঙ্গুরিয়া, বানিয়াপাড়া, গোমার, গারোকোনা, সন্ধ্যাকুড়া, গান্ধিগাও, ভালুকা, জারুলতলা, মানিককুড়া, বাওঐ বাধা, হলদিগ্রাম, ফাকরাবাদ ও ভারুয়া উল্লেখযোগ্য।

আবাদকৃত সবজিগুলো হচ্ছে, শিম, শসা, লাউ, চালকুমড়া, বরবটি, করলা, চিচিঙ্গা, পুটল, ও বেগুন। বর্তমানে এসব সবজি সারা বছর আবাদ হচ্ছে।

কৃষি সম্প্রষারণ অধিদপ্তর ও কৃষকদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, জলবায়ূ পরিবর্তনের কারনে এ উপজেলায় সারা বছর সবজি চাষ হচ্ছে।

উৎপাদনকৃত সবজি স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে রপ্তানি করা সম্ভব হচ্ছে। সবজি চাষ করে কৃষকরা ধান চাষের চেয়ে লাভবান হচ্ছে। এ কারনে কৃষকরা সবজি চাষে ঝুঁকে পড়েছে।

মন্তব্য প্রদান করুন

*


*