‘মোদি আমাদের সিংহ’

বিজনেসটাইমস২৪.কম
ডেস্ক, ১৭ মে, ২০১৪:

Modiiiiলোকসভা নির্বাচনের পর উৎসবে উত্তাল পুরো ভারত। এ উৎসবে যোগ দিতে উত্তরপ্রদেশের বারানসিতে যাওয়ার আগে দিল্লিতে যান ভারতের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ভোটে জয়ী বীরই নন, মোদিকে রীতিমতো দেশ চালানোর সিংহ (শক্তিশালী শাসক) ভাবছেন দিলিস্নবাসী।

ঐতিহাসিক বিজয়ের পর বিজেপিনেতা নরেন্দ্র মোদি তার নিজের শহর গুজরাট থেকে পথ শোভাযাত্রার মাধ্যমে রাজধানী দিলিস্নতে যান। দীর্ঘ ১৫ কিলোমিটার রাস্তার দুপাশে তাকে অভিবাদন জানাতে উপস্থিত হাজারো জনতা।

ফুল, পতাকা, বেলুন আরও প্ল্যাকার্ড হাতে হাজারো মানুষের উপস্থিতি একরকম উৎসবে রূপ নেয়। তাদের মধ্যে ছিলেন ৩৯ বছর বয়স্ক ওম দত্ত। বিশাল জনতার ভিড়ে উচ্চস্বরে তিনি বলেন, মোদি আমাদের লায়ন (সিংহ)। তিনি ভারতের মানুষের জন্য কাজ করবেন, উন্নয়নে কাজ করবেন, তিনি সবার উন্নতি করবেন। মোদি আমাদের স্বপ্ন দেখিয়েছেন, সেই স্বপ্নও বাস্তবায়ন করবেন।

উন্নয়ন ও দুর্নীতিমুক্ত দেশগঠনের অঙ্গীকার নিয়ে বিজেপি ৩০ বছর পর একক সংখ্যাগরিষ্ঠ দল হিসেবে হাজির হয়েছে। দেশের অর্থনৈতিক উন্নতি মোদি সরকারের প্রাধান্যের বিষয় থাকবে। আজকের পথ শোভায়ও ভারতের অর্থনীতিকে পুনরুজ্জীবিত করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন মোদি। গুজরাট থেকে দিলিস্নর প্যারেড শোতে আসা জনগণকে পতাকা নেড়ে, ভি-চিহ্ন প্রদর্শন করে অভিবাদনের জবাব দেন তিনি।

এরপর দিলিস্নতে বিজেপির প্রধান কার্যালয়ের সামনে সমবেত জনগণের উদ্দেশে মোদি বলেন, আমি আপনাদের কাছে মাথা নত করতে চাই। আমি ভারতের মানুষকে ধন্যবাদ দিতে চাই। আজকের এ জয় আপনাদের। এ জয় সব ভারতীয়দের। সব ভারতীয়দের হয়ে দেশ চালাবেন তিনি।

মোদি বলেন, বিভক্তির রাজনীতি শেষ, আজ থেকে আমরা ভারতীয় জনগণকে নিয়ে নতুন করে ঐক্যের রাজনীতি শুরু করব।

কংগ্রেসকে উদ্দেশ করে মোদি বলেন, আমি স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশ নিতে পারিনি। কিন্তু ভারতের রাজতন্ত্র ও পরিবারতন্ত্র বিলুপ্ত করে স্বাধীনতার মূল বিষয় প্রতিষ্ঠা করতে চাই। গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় সব ধরনের পদক্ষেপ তিনি গ্রহণ করবেন বলে জানান।

ভারতে দীর্ঘদিন ক্ষমতায় ছিলেন মহাত্মা গান্ধীর গড়া সবচেয়ে প্রাচীন দল কংগ্রেস। দলটির প্রথম প্রধানমন্ত্রী জওহর লাল নেহরু গান্ধী থেকে শুরু করে দীর্ঘদিন ভারত চালানোর ক্ষমতা ওই একই পরিবারের মধ্যে বন্দি ছিল।

মোদি বলেন, ১৯৫২ সাল থেকে পরবর্তী ৩ বা ৪ প্রজন্ম প্রচুর সময় অপচয় করেছে। অবশেষে সেটাকে পেছনে ফেলে জয় ছিনিয়ে নিতে সক্ষম হয়েছি আমরা। ক্ষমতা আর কেন্দ্রীভূত হয়ে থাকবে না।

বলা হয়, এবারের নির্বাচনে বিজেপির জেতার পেছনে ভারতীয় গণমাধ্যমগুলোর প্রচরণা ব্যাপক কাজে দিয়েছে। বিজয় উৎসবে গণমাধ্যমগুলোকে ধন্যবাদ জানাতে ভোলেননি  মোদি। তিনি বলেন, ভোটারদের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি ও গণতন্ত্রের উৎসব উদযাপনে কাজ করেছে ভারতীয় গণমাধ্যম। এজন্য আমি আন্তরিকভাবে তাদের ধন্যবাদ জানাই।

সূত্র জি নিউজ, টাইমস অব ইন্ডিয়া।

মন্তব্য প্রদান করুন

*


*