বাংলাদেশে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন দেখতে চায় ইইউ : রাষ্ট্রদূত মেয়োডন

বিজনেসটাইমস২৪.কম
ঢাকা, ০৫ নভেম্বর, ২০১৪:

EU New Ambessadorবাংলাদেশে সব দলের অংশগ্রহণমূলক, অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন দেখতে চায় ইউরোপীয় ইউনিয়ন। বাংলাদেশে ৫ জানুয়ারির নির্বাচন পরবর্তীতে ইইউ’র যে দৃষ্টিভঙ্গি ছিল তা এখনো অব্যাহত রয়েছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশে নবনিযুক্ত ইউরোপীয় ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূত পিয়েরি মেয়োডন।

বুধবার বিকালে রাজধানীর গুলশানের একটি হোটেলে পরিচিতিমূলক এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। ইউরোপীয় ইউনিয়ন সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে।

ইইউ’র রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়ন আগের অবস্থানে অনঢ় রয়েছে। তিনি বলেন, ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে বাংলাদেশের বড় রাজনৈতিক একটি দল অংশ নেয়নি। এই নির্বাচন নিয়ে অনেকের প্রশ্ন রয়েছে।

বাংলাদেশে মানবতাবিরোধী অপরাধে অভিযুক্তদের ফাঁসি নিয়ে ইইউ’র অবস্থান জানতে চাইলে নতুন এই রাষ্ট্রদূত বলেন, কোন মৃত্যুদন্ডকেই সমর্থন করে না ইউরোপীয় ইউনিয়ন। এটা মানবাধিকার বর্হিভূত কর্মকান্ড বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

মেয়োডন বলেন, যেকোন মৃত্যুদন্ডকেই ইউরোপীয় ইউনিয়ন সমর্থন করে না। সেটা বাংলাদেশেই হোক আর যে কোন দেশেই হোক। তবে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করবে কি করবে না তা বাংলাদেশের অভ্যন্তরীন বিষয় বলে মনে করে ইইউ।

জিএসপি প্রসঙ্গে রাষ্ট্রদূত বলেন, আন্তর্জাতিক কোর কনভেনশনে যারাই স্বাক্ষর করেছে তারাই এ সুবিধা পাবার অধিকার রাখে। আগামী ২০২১ সালের আগে বাংলাদেশকে মানবাধিকার, শ্রমিক অধিকার, ও শাসনকার্যের প্রত্যাশিত উন্নয়ন হলেই বাংলাদেশ জিএসপি প্লাস সুবিধা পাবে, অন্যথায় নয়।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি পিয়েরি মেয়োডন ইইউ’র বাংলাদেশ নতুন রাষ্ট্রদূত হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন। তিনি সাবেক রাষ্ট্রদূত উইলিয়াম হানার স্থলাভিষিক্ত হন।

মন্তব্য প্রদান করুন

*


*